বিনোদন

যীশু পত্নীর রূপের জাদুতে ঘায়েল নেটাগরির একাংশ! দেখুন তার বর্তমানের গ্ল্যামার জৌলুশ

প্রতিভায় পরিপূর্ণ হলেও বাংলার তিন অভিনেতা – প্রসেনজিৎ, জিৎ ও দেবের সাথে প্রতিযোগিতায় না পেরে টলিউডে কোন ঠাসা হয়ে থেকে গেলেন যীশু সেনগুপ্ত। যেমন দেখতে, তেমন অভিনয়, তবুও কদর পেলেন না বাংলায়। এমতোবস্থায় সাউথে পা রেখে একের পর এক সুপারহিট ছবি করছেন তিনি। যদিও আজ গল্প যীশুকে নিয়ে নয়।

আজ এই প্রতিবেদন তার স্ত্রী নীলাঞ্জনাকে কেন্দ্র করে। নীলাঞ্জনা সেনগুপ্ত খুব বেশি স্পটলাইটে আসেন না । এমনকি যীশু সেনগুপ্তের সাথেও কোনো বিশেষ অনুষ্ঠান ছাড়া তাকে প্রায় দেখাই যায় না। চলুন জেনে নেওয়া যাক তার সম্পর্কে অজানা কিছু তথ্য।

নীলাঞ্জনা সেনগুপ্ত একসময় বাংলা সিনেমার অভিনেঅত্রী ছিলেন। অভিনয়ের সূত্র ধরেই যীশু সেনগুপ্তের সাথে তার আলাপ এবং তারপর বিয়ে। বিয়ে, সংসার ও সন্তানদের জন্য আর অভিনয় জগতে কাজ করা হয়ে ওঠেনি তার। তার মা, অঞ্জনা ভৌমিক বাংলার একজন জনপ্রিয় অভিনেত্রী। যদিও বাংলার বাইরে তিনি জন্মগ্রহণ করেন, তবুও বাংলায় তার সাবলীল অভিনয়ের দক্ষতা তাকে বেশ জনপ্রিয়তা দিয়েছিল।

তার জন্ম হয় মুম্বাই-এ। সেখানেই তার বড়ো হয়ে ওঠা। সেখানকার নামজাদা ইংরেজী মাধ্যম বিদ্যালয়ে তার পড়াশুনো। তার বাবা অনিল শর্মা সমাজের একজন প্রতিষ্ঠিত মানুষ। তার দুই মেয়ের বড়ো হলেন নীলাঞ্জনা ও ছোট হলেন চন্দনা। ২০০২ সালে ‘স্বপ্নের ফেরিওয়ালা’ দিয়ে তার টলিউডে প্রবেশ। এরপর বাংলা ও হিন্দি উভয় ইন্ডাস্ট্রিতে তিনি বেশ কিছু কাজ করেন। তার রূপের জেল্লা আর গুনের বিকাশ তাকে অনেক সুযোগ করে দিয়েছেন। যদিও বর্তমানে তিনি সন্তানদের জন্য অভিনয় জগৎ থেকে বিচ্ছিন্ন।

Related Articles